কেন সেলাই বা দর্জি কাজ শিখবেন? ঘরে বসেই ভিডিও দেখে সেলাইয়ের কাজ শিখুন

ফ্রি সেলাই শিক্ষা

হ্যা, যে কোন একটি কাজ শেখার আগে আমাদের অবশ্যই জানা উচিত যে কেন আমরা সেই কাজটি শিখবো। আপনি যেহেতু ভিডিও টি দেখেতেছেন হয়তো সেলাই কাজের প্রতি আপনার আগ্রহ আছে । তো চলুন আজকের ভিডিওতে আমরা জেনে নিই কেন আপনি সেলাই কাজ শিখবেন।

সেলাই কাজ শেখার পেছনে বেশ কয়েকটি কারণ আছে । যেমনঃ

১।  স্বনির্ভরতাঃ আপনি যদি সেলাই কাজ জানেন তাহলে ছোট কাটো ড্রেস বানানোর জন্য বাইরের দর্জির দোকানে যেতে হবেনা। আপনার এবং আপনার পরিবারের সকলের পোশাক ঘরে বসেই তৈরী করতে পারবেন।

২। সময় বাচাঁনোঃ  বাইরের দোকানে গিয়ে পোশাক বানাতে দিলে স্বাভাবিক ভাবেই ৩/৪ দিন বা ১ সপ্তাহের মতো সময় লেগে যায়। অনেক সময় জরুরী অবস্থায় সময় সংক্ষিপ্ততার কারণে দোকান থেকে ইচ্ছেমত পোশাক বানাতে ও পারিনা। এই সমস্যাটার সমাধান আপনি নিজেই করতে পারবেন যদি আপনি নিজেই সেলাই কাজ শিখে নিতে পারেন।

৩। নিজের ডিজাইনে আকর্ষণীয় পোশাক পড়াঃ নিজের মতো ডিজাইনে দর্জির কাছ থেকে পোশাক বানাতে গিয়ে সমস্যায় পড়েনি এমন কেউ নেই। প্রায়ই এই সমস্যায় পড়ে থাকি আমরা। তাহলে চিন্তা করুন আপনি নিজেই যদি দর্জি হয়ে যান তাহলে কি আর এই সমস্যা টি থাকবে? অবশ্যই না। তখন আপনি নিজেই নিত্য নতুন ডিজাইনে অল্প সময়ে ঘরে বসে আপনার পোশাকটি তৈরী করে নিতে পারবেন।

 

৪। টাকার অপচয়রোধঃ বস্ত্র বা পোশাক পড়া আমাদের মৌলিক অধিকারে একটি। আর তাই পোশাকের গুরত্ব ও অপরিসীম। কিন্তু একবার কি ভেবে দেখেছেন এই পোশাক বানানোর জন্য প্রতি মাসে , প্রতি বছরে আপনি কত টাকা দর্জি কে দিচ্ছেন? পুরো একটি মাসের বা বছরের হিসেব করে দেখুন তাহলেই বোঝতে পারবেন।

৫। অর্থ উপার্জনঃ বর্তমান সময়ে পোশাক শিল্প বাংলাদেশের বড় একটি অর্থনৈতিক খাত। আপনি যদি সেলাই/দর্জি কাজ পারেন তাহলে পাড়া প্রতিবেশির পোশাক বানিয়ে, নিজে একটি ছোটকাটো দোকান খুলে অথবা গার্মেন্টেসে চাকরি করে আপনার পরিবার কে অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে নিতে পারবেন।

৬। বেকার সমস্যার সমাধানঃ বর্তমান সময়ে অনেক ছেলে মেয়ে পড়ালেখা করেও তাদের পরিবারের জন্যই কিছু করতে পারছেনা। আপনি যদি সেলাই কাজ শিখেন তাহলে অন্তত সাময়িকভাবে হলেও বেকার সমস্যার সমাধান করতে পারবেন।

৭। আত্মতৃপ্তিঃ নিজের কাজ নিজে করার মাঝে আমরা একটা আনন্দ খুজে পাই। আর তাই আপনার নিজের পোশাক তথা আপানার পুরো পরিবারের পোশাক যদি আপনিই তৈরী করে নিতে পারেন তার চেয়ে আত্মতৃপ্তির আর কি হতে পারে?

Leave a Reply